সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ ::
পাবনায় বিরোধের জেরে যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা আজ পবিত্র শবে বরাত চালক ছাড়াই ৭০ কিলোমিটার চলল ট্রেন, আতঙ্কে যাত্রীদের ছোটা ছুটি মাতৃছায়া কিন্ডার গার্টেন স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত ঈশ্বরদী থেকে নিরুদ্দেশ হওয়া শিক্ষিকা ও দুই ছাত্রের উদ্ধার আন্ত উপজেলা কিন্ডার গার্টেন অ্যাসোসিয়েশন ঈশ্বরদীর নতুন কমিটি গঠন ঈশ্বরদী শহরকে পরিচ্ছন্ন করতে অভিযানে নামলেন গালিবুর রহমান শরীফ এমপি দেড় বছর পর জানা গেল সে ভুয়া পুলিশ আড়ানী রেলস্টেশন থেকে টিকিট কালোবাজারি গ্রেফতার সংরক্ষিত আসনে মহিলা সংসদ সদস্য পদ প্রার্থী মাহজ্যাবিন শিরিন পিয়ার সংবাদ সম্মেলন

তথ্য ফাঁস, টাকার বিনিময়ে দেয়া হয়েছিল ট্রেনে আগুন

ডিডিপি নিউজ ২৪ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২৩

পাবনা প্রতিনিধি।।

‘টাকার বিনিময়ে নাশকতার উদ্দেশ্যে পাবনার ঈশ্বরদী জংসন স্টেশনের ওয়াশপিটে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রেনে আগুন দিয়েছিলেন বিএনপি ও যুবদলের নেতাকর্মীরা। আর এ ঘটনার সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ট্রেন বহরে হামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামী স্থানীয় বিএনপি নেতা জাকারিয়া পিন্টুর আপন দুই ভাই জড়িত।’

ঘটনার পর পুলিশের অভিযানে আটক বিএনপি কর্মী সুমন হোসেন (৩২) ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে এমন তথ্য জানিয়েছে পুলিশকে। আগুন দিতে গিয়ে দগ্ধ হয়েছিলেন সুমন। বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) বিকেলে পাবনার পুলিশ সুপার আকবর আলী মুনসী এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য তুলে ধরেন।

এর আগে বুধবার (২৯ নভেম্বর) বিকেলে ঈশ্বরদীর ফতে মোহম্মদপুর রেলওয়ে হাসপাতালের সামনে থেকে বিএনপি কর্মী সুমনকে আটক করে পুলিশ। আটক সুমন ঈশ্বরদী পৌর এলাকার রহিমপুর গার্লস স্কুল মহল্লার তাইজুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ সুপার আকবর আলী মুনসী বলেন, গত ২৭ নভেম্বর রাতে বিএনপি ও জামায়াতের ডাকা অবরোধ চলাকালে ঈশ্বরদী রেল জংশন এলাকার ওয়াশপিটে দাঁড়িয়ে থাকা (সিক্স ডাউন) ট্রেনে পেট্রোল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয় দূর্বৃত্তরা। এই ঘটনায় রেলওয়ে থানায় একটি মামলা দায়েরের পর অভিযানে নামে পুলিশের একাধিক দল।

এ সময় ট্রেনে আগুন দিতে গিয়ে দগ্ধ সুমন বাসা থেকে ওষুধ কিনতে আসলে সেই সূত্র ধরে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতাকৃত সুমনের দেয়া তথ্য সূত্রে ট্রেনে আগুন দেয়ার রহস্য বেরিয়ে আসে। প্রাথমিকভাবে পুলিশের কাছে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সুমন।

পুলিশ সুপার বলেন, অর্থের বিনিময়ে ট্রেনে আগুন দিতে নির্দেশ দিয়েছিলেন স্থানীয় বিএনপি নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ট্রেন বহরে হামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামী জাকারিয়া পিন্টুর আপন দুই ভাই। তারা হলেন, ঈশ্বরদী থানা সেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব মেহেদী হাসান ও পৌর যুব দলের আহবায়ক জাকির হোসেন জুয়েল।

এই ঘটনার সঙ্গে আরো বেশ কয়েকজন জড়িত বলে তথ্য পেয়েছে পুলিশ। তারা হলেন, ঈশ্বরদী পৌর সদরের শৈলপাড়া এলাকার আবুল কালামের ছেলে পৌর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক শাহীন হোসেন, একই এলাকার মৃত ফরিদ হোসেনের ছেলে পৌর যুবদলের সদস্য রুবেল হোসেন, মকলেছ হোসেনের ছেলে মামুন হোসেন ও রহিমপুর এলাকার রাসেল হোসেন। এসব আসামীসহ পরিকল্পনাকারীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে। আটক সুমনকে আইনগত প্রক্রিয়া শেষে রেলওয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার আরো বলেন, দুষ্কৃতিকারীরা যাতে পুনরায় ট্রেনে আগুন দিতে না পারে, সেজন্য ঈশ্বরদী রেল জংশন এলাকায় অতিরিক্ত আলোর ব্যবস্থা, সিসিটিভি স্থাপন, সাদা ও পোষাকী পুলিশসহ আনসার সদস্য বৃদ্ধি করা হয়েছে। একইসাথে পুরো জংশন এলাকাকে নিরাপত্তার মধ্যে আনার জন্য চারপাশে কাটাতার স্থাপনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Copyright 2020 © All Right Reserved By DDP News24.Com

Developed By Sam IT BD

themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!