বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ ::
ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর নাম ঘোষণা ঈশ্বরদীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহিম মালিথার মৃত্যুবার্ষিকী পালিত আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে দুর্ঘটনায় ২ শ্রমিকের মৃত্যু, আহত-২ চলন্ত ট্রেনে শিশু জন্মগ্রহণ কালে সহায়তাকারীদের সংবর্ধনা দিল বাংলাদেশ রেলওয়ে অপশক্তি ও চাঁদাবাজদের স্থান আমার কাছে হবেনা–বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নুরুজ্জামান বিশ্বাস এমপি এএসই রোসাটমের আয়োজনে সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট ইন বাংলাদেশ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর রাজধানীর কুর্মিটোলায় মাথায় গুলি লেগে RAB সদস্যের মৃত্যু দেশে আরো ৪১ জনের করোনায় মৃত্যু

আজ মরমী সাধক বাউল শাহ আব্দুল করিমের দশম মৃত্যুবার্ষিকী, ডিডিপির গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন

ডিডিপি নিউজ ২৪ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : রবিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আজ মরমী সাধক বাউল শাহ আব্দুল করিমের দশম মৃত্যু বার্ষিকী।।
ডিডিপির শ্রদ্ধা নিবেদন
———-
এম এন সরদার ও মুনমুন আক্তার।। আজ ১২ সেপ্টেম্বর’২১ ভাটি বাংলার মরমী গানের অমর শিল্পী বাউল সাধক শাহ আব্দুল করিমের দশম মৃত্যুবার্ষিকী। ২০০৯ সালের এই দিনে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর লেখা ও সুর করা প্রাণ জুড়ানো শত শত গানের মাধ্যমে তিনি হয়ে উঠেছিলেন এদেশের গণমানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক। পাশাপাশি সমাজের সব অন্যায়-অবিচার আর সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে তাঁর কন্ঠ ছিল আজীবন সোচ্চার। ভাটি অঞ্চলের বিস্তীর্ণ জনপদের মানুষের নানা অনুভূতি আর গল্প উঠে এসেছে মরমী সাধক বাউল শিল্পী শাহ আব্দুল করিমের গানের মাধ্যমে ।
জানা গেছে, বাউল সাধক শাহ আব্দুল করিম সুনামগঞ্জ জেলার ধলআশ্রম গ্রামে ১৯১৬ সালের ১৫ই ফেব্রুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। বাউল সম্রাট ফকির লালন শাহ, দুদ্দু শাহ, পাঞ্জু শাহ’র গান ও দর্শনে অনুপ্রাণিত হয়ে শৈশব থেকেই গানের সাথে তাঁর পথচলা। দারিদ্রের সঙ্গে লড়াই করেও নিজের শিল্পী সত্তার বিকাশ ঘটিয়েছেন তিনি। জীবিকার তাগিদে কৃষিকাজও করেছেন দীর্ঘদিন। কিন্তু কোনো কিছুই তাঁকে গান সৃষ্টি করা থেকে বিরত রাখতে পারেনি।
স্বশিক্ষায় শিক্ষিত সাধক বাউল শাহ আব্দুল করিম মৃত্যুর আগ পর্যন্ত প্রায় পাঁচ শতাশিক গান লিখে সুর করেছেন। বাংলা একাডেমির উদ্যোগে তাঁর ১০টি গান ইংরেজিতে অনূদিত হয়েছে। কিশোর বয়স থেকে গান লিখলেও এসব গান শুধুমাত্র ভাটি অঞ্চলের মানুষের কাছেই জনপ্রিয় ছিল। তাঁর মৃত্যুর কয়েক বছর আগে বেশ কয়েকজন শিল্পী বাউল শাহ আব্দুল করিমের গানগুলো নতুন করে গেয়ে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করলে তিনি দেশব্যাপী ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেন। বর্তমানে নামিদামী সব পর্যায়ের শিল্পীদের মুখে মুখেই উচ্চারিত হয় শাহ আব্দুল করিমের গান। তিনি গানে গানে রূপ দিয়েছেন গণমানুষের জীবনের আনন্দ-বেদনা আর প্রেম-বিরহের গল্প। পাশাপাশি সামাজিক অসংগতি, অন্যায়-অবিচার আর সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে তাঁর কন্ঠ ছিল আজীবন সোচ্চার। ভাটি অঞ্চলের এই বাউলসাধক তাঁর সাধনার স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন একুশে পদক, লেবাক এওয়ার্ড, বাংলাদেশ জাতিসংঘ সমিতি সম্মাননাসহ অজস্র পুরস্কার।
২০০৯ সালের ১১ই সেপ্টেম্বর শুক্রবার দুপুর থেকেই সিলেটের একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। সে সময় তাঁকে লাইফসাপোর্ট দিয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়। তাঁর পরদিনই ১২ই সেপ্টেম্বর অগণিত ভক্তকূল ও গানপ্রেমীদের শোকের সাগরে ভাসিয়ে পৃথিবী থেকে বিদায় নেন বাউল সাধক শাহ আব্দুল করিম। আজ তাঁর দশম মৃত্যুবার্ষিকীতে ঈশ্বরদীর স্বনামধন্য সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান ডিডিপি মিউজিক একাডেমী ও বাউল সম্প্রদায়ের চেয়ারম্যান সাপ্তাহিক জংসন সম্পাদক ঈশ্বরদী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক কবি কলামিষ্ট গীতিকার সুরকার সমাজ সেবক সংগঠক ও শিল্পী সূফি সাধক গুরুজি এস এম রাজা মহোদয় তাঁর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন ও বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Copyright 2020 © All Right Reserved By DDP News24.Com

Developed By Sam IT BD

themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!